কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ খালি করবেন

0
242

দীর্ঘদিন ধরে Android স্মার্টফোন ব্যবহার করার ফলে ইন্টারনাল স্টোরেজ ফুল হয়ে যাওয়ার সমস্যায় কমবেশি সবাই পড়ি। ইন্টারনাল স্টোরেজ ফুল হয়ে গেলে ফোন স্লো হতে শুরু করে এবং বিভিন্ন ল্যাগিং দেখা দিতে থাকে। যদিও স্মার্টফোন কোম্পানি গুলো গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখে ইদানিং সময়ে ইন্টারনাল স্টোরেজ বেশি দেয়া শুরু করেছে। তবুও কিছুদিন ব্যবহারের পরে সেটাও আমাদের কাছে কম স্টোরেজ বলে মনে হয়।

বিশেষ করে, ৩২ অথবা ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের স্মার্টফোন ব্যবহার করার ৫/৬ মাস পর থেকেই “Internal Storage Running Out” এর মত বিরক্তিকর নোটিফিকেশন দেখতে হয়। তবে Android স্মার্টফোনের একটা ভালো দিক হলো, বিভিন্ন উপায়ের মাধ্যমে আপনি এর ইন্টারনাল স্টোরেজ কমাতে পারবেন। চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ খালি করে পারফরমেন্স বৃদ্ধি করতে পারেন।

কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ খালি করবেন

কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ খালি করবেন (How to Free Up Space on Android)

Cache মেমোরি ক্লিয়ার

Cache মেমোরি হলো এক ধরনের রিজার্ভ স্টোরেজ লোকেশন যেখানে ইউজারের ব্যবহৃত ডেটা স্টোর হয় যা ব্রাউজারে ওয়েবসাইট বা অ্যাপস কে দ্রুত লোড হতে সাহায্য করে থাকে। বিভিন্ন ধরনের মেসেঞ্জিং অ্যাপস এ যদি আপনি ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়া প্রবেশ করেন, তাহলে আপনি আপনার পুরোনো মেসেজগুলো দেখতে পারবেন। অথবা কোন ব্রাউজারের মাধ্যমে কোন ওয়েবসাইট ভিজিট করার সময় সেই সাইটের ডাটা আপনার ব্রাউজার অ্যাপস এ cache মেমোরিতে জমা হয় যা পরবর্তীতে ঐ ওয়েবসাইট দ্রুত লোড হতে সাহায্য করে।

অ্যাপস এর Cache ডাটা দরকারি হলেও এই ডাটা ছাড়া যেকোন অ্যাপ অনায়েসেই চলতে পারে। তাই প্রতিটা অ্যাপস এর Cache মেমোরি ক্লিয়ার করে আপনি ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ কিছুটা খালি করতে পারবেন।

Cache মেমোরি ক্লিয়ার

Cache মেমোরি ক্লিয়ার করার জন্য প্রথমে ফোনের Settings থেকে Apps এ যেতে হবে। এরপর যে Apps এর Cache ক্লিয়ার করবেন সেটা সিলেক্ট করতে হবে। এরপরে “Storage & Cache” সেকশনে যেতে হবে। স্টোরেজ থেকে “Clear Cache” এ ক্লিক করে Cache মেমোরি ক্লিয়ার করতে পারবেন।

অব্যবহৃত অ্যাপলিকেশন আন-ইন্সটল

Android ফোনে এমন অনেক অ্যাপস আছে যেগুলো দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার হয় না, সে সকল অ্যাপলিকেশন uninstall করে দেয়াই ভালো। এতে করে আপনার ফোনের স্টোরেজ আনেকটাই খালি হয়ে যাবে। পরে প্রয়োজন হলে uninstall করা অ্যাপস আবার install করে নিতে পারবেন। আর এমন কোন প্রিলোডেড অ্যাপ যদি থাকে যেটা uninstall করা যায় না, সেটা রিমুভ অথবা ডিসেবল করে রাখতে পারেন

ছবি ও ভিডিও ডিলিট

Android স্মার্টফোনে মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করার ফলে ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি ও ভিডিও মেমোরিতে অনেক জায়গা দখল করে। যদি এমন কোন ছবি থাকে যেটার ভবিষ্যতে আপনার প্রয়োজন নেই, সেগুলো ডিলিট করে দিতে পারেন। এছাড়া ফোন যদি এমন কোন গানের ভিডিও অথবা মুভি ডাউনলোড করা থাকে যেটা আপনার দেখা হয়ে গেছে, সেটা ডিলিট করে স্টোরেজ খালি করতে পারেন। এছাড়াও WhatsApp এর মাধ্যোমে অটো ডাউনলোড হওয়া ছবি বা ভিডিও যেগুলো ১ বার দেখার পরে আর দেখার দরকার নাই, সেগুলো ডিলিট করে দিতে পারেন।

এসডি কার্ড ব্যবহার

বর্তমানে প্রায় সকল Android স্মার্টফোনেই দুইটি সিম কার্ডের পাশাপাশি মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা থাকে। তবে ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি ১২৮ জিবি বা তার চেয়ে বেশি হলে মেমোরি কার্ড ব্যবহার করার প্রয়োজন না হলেও ইন্টারনাল স্টোরেজ কম থাকা বাজেট স্মার্টফোনগুলোতে microSD কার্ড ব্যবহার করা দরকারি হয়ে পড়ে। ছবি ও ভিডিও ফোনের স্টোরেজ থকে মুভ করে মেমোরি কার্ডে নিয়ে ইন্টারনাল মেমোরি ফাকা করা যেতে পারে। এছাড়াও কিছু কিছু স্মার্টফোনে এসডি কার্ডে অ্যাপ মুভ করার ফিচার রয়েছে, যার মাধ্যমে আপনি ফোনের স্টোরেজ খালি করতে পারেন। তবে অবশ্যই ভালো মানের microSD কার্ড কিনতে হবে ও কার্ডের Read/Write স্পিড ভালো মানের হতে হবে।

ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার

ক্লাউড স্টোরেজের ব্যবহার ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ খালি করার অন্যতম একটা উপায়। Android ফোনের জন্য অনলাইনে বিভিন্ন কোম্পানির ক্লাউড স্টোরেজ সেবা রয়েছে। এর মধ্যে গুগল ড্রাইভ, ওয়ান ড্রাইভ, ড্রপ বক্স অন্যতম। এছাড়াও বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোবাইলের নিজস্ব ক্লাউড স্টোরেজ রয়েছে যেখানে ফোনের প্রয়োজনীয় ফাইল রাখা যেতে পারে। Android ফোনে থাকা গুগল ফটোজ অ্যাপসের মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও ব্যাকআপ করে ফোন থেকে ডিলিট করে দিয়ে ইন্টারনাল মেমোরি খালি করা যেতে পারে এবং ব্যাকআপ করা ছবি Photos অ্যাপস অথবা photos.google.com থেকে যেকোন সময় ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া ওয়ান ড্রাইভ ও ড্রপবক্স জন্য ডেস্কটপ অ্যাপস ও রয়েছে, এতে আপনার ফাইল পিসি থেকেও একসেস করতে পারবেন।

উপরের উপায়গুলো অনুসরন করেও যদি আপনার ফোনের স্টোরেজ ফাকা করতে না পারেন, তাহলে ফোন রিসেট দিয়ে নতুনভাবে ব্যবহার করতে পারেন অথবা বেশি ইন্টারনাল মেমোরি আছে এমন একটু নতুন Android মোবাইল কিনতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here