কিভাবে স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বাড়াবেন?

0
236

স্মার্টফোনের মতোই একটি ফোনের ব্যাটারিও গুরুত্বপূর্ণ। কারণ স্মার্টফোনের ব্যাটারি শক্তিশালী না হলে বারবার চার্জ দিতে হয়, যা বেশ বড় অসুবিধার কারন হয়ে দাঁড়ায়। যাদের স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়, একমাত্র তারাই বুঝে এটা কত বড় একটা সমস্যা। এবং তাদের জন্য ‘কিভাবে স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বাড়াবেন” এই বিষয়ে কিছু পরামর্শ শেয়ার করবো। এইগুলি অনুসরণ করে, আপনি সহজেই আপনার স্মার্টফোনের ব্যাটারির আয়ু বাড়াতে পারেন।

কিভাবে স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বাড়াবেন

কিভাবে স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বাড়াবেন

১. ডিসপ্লে রিফ্রেশ রেট কমিয়ে দিন

সাম্প্রতিক সময়ের স্মার্টফোনগুলিতে ৬০ হার্জ থেকে ১২০ হার্জ পর্যন্ত রিফ্রেশ রেটের ফিচার থাকে। আসলে, রিফ্রেশ রেট যত বেশি হবে, ব্যাটারির চার্জের স্থায়ীত্ব তত কম হবে। ফোনের রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্জ এ সেট করা থাকলে, ব্যাটারি দ্রুত ফুরিয়ে যাবে। এবং যদি আপনার স্মার্টফোনে রিফ্রেশ রেট বেছে নেওয়ার অপশন থাকে, তাহলে কমিয়ে ৯০ হার্জ বা ৬০ হার্জ এ সেট করুন। এতে আপনার ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়বে।

ডিসপ্লে রিফ্রেশ রেট

রিফ্রেশ রেট কিভাবে পরিবর্তন করবেন

  • স্মার্টফোনের রিফ্রেশ রেট কমাতে প্রথমে আপনাকে “সেটিংস” এ যেতে হবে।
  • তারপর “ডিসপ্লে” সেকশনে যান
  • ডিসপ্লেতে রিফ্রেশ রেট বেছে নেয়ার অপশন দেখতে পাবেন।
  • তারপর ৬০ হার্জ সিলেক্ট করুন

২. ব্যাটারির চার্জ বেশি ব্যবহৃত হয় এমন অ্যাপ

যদি আপনার ফোনের ব্যাটারি খুব দ্রুত শেষ হয়ে যায়, তাহলে আপনাকে প্রথমে খুঁজে বের করতে হবে এমন কোনো মোবাইল অ্যাপ আছে কি না যার কারণে ব্যাটারির চার্জ বেশি খরচ হচ্ছে। সেক্ষেত্রে যেসব অ্যাপ বেশি ব্যাটারি খরচ করে সেগুলো আনইন্সটল করা ভালো, যদি আপনি সেগুলো ব্যবহার না করেন। আপনি ফোনের “সেটিংস” থেকে “ব্যাটারি” অপশনে গিয়ে সমস্ত তথ্য দেখতে পারেন। এছাড়াও ব্যাটারি খরচ কমাতে আপনি প্রয়োজনে “ব্যাটারি সেভার” চালু রাখতে পারেন।

৩. ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ বন্ধ রাখুন

স্মার্টফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান অ্যাপগুলো ব্যাটারির চার্জ খরচ করে। তাই মাল্টিটাস্কিং মেনুতে একসঙ্গে অনেকগুলো অ্যাপ্লিকেশন ওপেন না রাখাই ভালো। তাই ফোনের মাল্টিটাস্কিং মেনু থেকে যে অ্যাপগুলি আপনি ব্যবহার করছেন না তা বন্ধ করে রাখতে পারেন। এতে আপনার স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ ব্যাকআপ বেশি পাওয়া যাবে।

৪. অটো-লক সেট করুন

যতটা সম্ভব কম সময়ের ব্যবধান রেখে আপনার স্মার্টফোনে অটো-লক সেট করুন। কারণ, ডিসপ্লে যত বেশিক্ষন ধরে অন থাকবে, ব্যাটারি চার্জ তত বেশি খরচ হবে। অটো-লকের মাধ্যমে ফোন যদি স্লিপ মোডে চলে গেলে একটু হলেও চার্জ কম ফুরাবে।

৫. লো ব্রাইটনেস সেট করুন

ডিসপ্লের বেশি ব্রাইটনেসের কারনে ব্যাটারির চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যায়। তাই যতটা সম্ভব ব্রাইটনেস কম রাখার চেষ্টা করুন। যা ভালো ব্যাটারি ব্যাকআপের পাশাপাশি আপনার চোখকেও সুরক্ষিত রাখবে।

৬. লাইভ ওয়ালপেপার

লাইভ ওয়ালপেপার ব্যবহার করলে ব্যাটারি ব্যাকআপ কমে যায়। তাই আপনি যদি আপনার স্মার্টফোনে লাইভ ওয়ালপেপার ব্যবহার করে থাকেন তবে এখনই বন্ধ করুন। এতে আপনার স্মার্টফোনের ব্যাটারির ব্যাকআপ বেড়ে যাবে।

৭. মোবাইল ডাটা বন্ধ রাখুন

স্মার্টফোনে ওয়াই ফাই ব্যবহারের চেয়ে মোবাইল ডাটা ব্যবহারে বেশি ব্যাটারি চার্জ ফুরায়। তাই ইন্টারনেট ব্যবহার ছাড়া মোবাইল ডাটা চালু করে না রাখাই ভালো। সচেতনতার সাথে মোবাইল ডাটা ব্যবহার করলে ডাটা খরচ কম হওয়ার পাশাপাশি ব্যাটারি ব্যাকআপ ও বাড়বে।

৮. অরিজিনাল চার্জার ব্যবহার

সব সময় চেষ্টা করুন, ফোনের সাথে দেওয়া আসল চার্জার দিয়ে চার্জ করতে। আপনি যদি অন্য কোনও চার্জার ব্যবহার করেন তবে এটি ফোনের ব্যাটারিতে খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। এতে ধীরে ধীরে ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কমে যেতে পারে।

এছাড়াও, স্মার্টফোন খুব ঘন ঘন চার্জে দেয়া উচিৎ নয়। ২০% এর নিচে ব্যাটারি চার্জ আসলে তবেই ফোনে চার্জ করা উচিত। তাছাড়া, আপনার মোবাইলে অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ইন্সটল করা থেকে বিরত থাকুন। যদি আপনার ফোনে অতিরিক্ত কোনো অ্যাপ থাকে যেটা আপনি ব্যবহার করেন না, তাহলে আপনি সেটি আনইনস্টল করে স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়াতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here